Photo of the Remarkables mountain range in Queenstown, New Zealand.

প্রতিদিনই লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে করোনা সংক্রমণ। এখোনো পর্যন্ত 650 পেড়িয়ে গেছে। এক সপ্তাহ আগেও যা 100 এর নীচে ছিল। 
ভাইরাস কোনও জীবিত প্রানী/কণা নয়, তবে লিপিড (ফ্যাট) এর সুরক্ষামূলক স্তর দ্বারা আচ্ছাদিত একটি প্রোটিন অণু যাকে DNA বলে, যা যখন চোখ, নাক বা মুখের কোষ দ্বারা শোষিত হয়, তখন তাদের জিনগত কোড পরিবর্তন করে। (যাকে mutation বলে) এবং তাদের মাল্টিপ্লাই কোষ হিসাবে ব্যবহার করে নিজেদের সংখ্যা বৃদ্ধি করে।

যেহেতু ভাইরাস কোনও জীবিত প্রাণী নয় তবে একটি প্রোটিন অণু, তাই একে মারা যায় না, তবে নিজে নিজেই মরে যায় যা তাপমাত্রা, আর্দ্রতা এবং যে ধরণের বস্তুর উপর  থাকে তার উপর নির্ভর করে।

ভাইরাস খুব ভঙ্গুর ধরনের; এটিকে রক্ষা করে যে জিনিসটি তা হল চর্বিযুক্ত (লিপিড বা ফ্যাট লেয়ার) পাতলা বাইরের স্তর। যে কারণে কোনও সাবান বা ডিটারজেন্ট হ’ল সবথেকে ভাল প্রতিকার, কারণ ফেনা ফ্যাট/লিপিড ভেঙে দেয় (এজন্য সাবান হাতে নিয়ে 20 সেকেন্ড বা তার বেশী সময় ধরে ঘষতে বলা হয় যাতে ভাল ফেনা হয় এবং লিপিড ভাঙতে সাহায্য করে)। ফ্যাট স্তরটি দ্রবীভূত করার মাধ্যমে, প্রোটিনের অণু ছড়িয়ে যায় এবং এটি নিজেই ভেঙে যায়।

5 ভাগ জল ও 1 ভাগ ব্লিচ মিশ্রণ সরাসরি প্রোটিন দ্রবীভূত করে, এটি ভিতর থেকে ভেঙে দেয়।

তাপে চর্বি (লিপিড বা ফ্যাট) গলে যায়; এজন্য হাত, কাপড় এবং সমস্ত কিছুর জন্য 25 ডিগ্রি সেলসিয়াসের উপরে জল ব্যবহার করা ভাল। তার থেকে বেশী গরম জল আরও ফেনা তোলে এবং এটি আরও কার্যকর করে তোলে।

70% অ্যালকোহল মিশ্রণও  ফ্যাট লেয়ার ভেঙে দেয়, বিশেষত ভাইরাসটির বহিরাগত লিপিড স্তর।

ভাইরাস ব্যাকটেরিয়ার মতো জীবিত নয়; অ্যান্টিবায়োটিকের সাহায্যে যা (ব্যাকটেরিয়া) বেঁচে নেই তা তারা হত্যা করতে পারে না। নিজেরাই ধীরে ধীরে মরে যায়।

ভাইরাসের অণুগুলি বাহ্যিক ঠান্ডায় খুব স্থিতিশীল থাকে, AC ঘর এবং গাড়িগুলিতে বেশ স্থিতিশীল থাকে। বিশেষত অন্ধকার আর আর্দ্রতা তাদের স্থিতিশীল থাকে সাহায্য করে। অতএব, শুষ্ক, উষ্ণ এবং উজ্জ্বল পরিবেশে ভাইরাসের দ্রত ক্ষয় হয়। 

ব্যবহৃত বা অব্যবহৃত পোশাক, চাদর বা কাপড় কখনো ঝাঁকুনি দেবেন না। এটি ছিদ্রযুক্ত পৃষ্ঠে আটকানো অবস্থায় কেবলমাত্র 3 ঘন্টা (ফ্যাব্রিক ও ছিদ্রযুক্ত) থাকে, 4 ঘন্টা (তামা, কারণ এটি প্রাকৃতিকভাবে অ্যান্টিসেপটিক এবং কাঠ সমস্ত আদ্রতা শুষে নেয়), 24 ঘন্টা (পিচবোর্ড), 42 ঘন্টা (ধাতু) এবং 72 ঘন্টা (প্লাস্টিক)। তবে আপনি যদি এটি ঝাঁকান বা একটি ঝাড়ু ব্যবহার করেন তবে ভাইরাসের অণুগুলি বাতাসে প্রায় 3 ঘন্টা ভাসতে থাকে এবং আপনার নাকের মধ্যে প্রবেশ করতে পারে।

UV লাইট ভাইরাস প্রোটিনকে ভেঙে দেয়। উদাহরণস্বরূপ, একটি মাস্ক জীবাণুমুক্ত এবং পুনরায় ব্যবহার করা যায়। সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে, এটি ত্বকে কোলাজেন (যা প্রোটিন) ভেঙে দেয়, ফলস্বরূপ চামড়ায় ভাঁজ এবং ত্বকের ক্যান্সার সৃষ্টি করে। ভাইরাস সুস্থ ত্বকের মধ্য দিয়ে যেতে পারে না।

ভিনিগার কার্যকর নয় কারণ ভিনিগার চর্বির প্রতিরক্ষামূলক স্তরটি ভেঙে দেয় না।

মদ জাতীয় পানীয় দ্রব্য, স্পিরিট বা ভদকা কার্যকর নয়। সবচেয়ে শক্তিশালী ভদকা 40% অ্যালকোহল, এবং আপনার দরকার 70%।

যত বেশি জায়গা সীমাবদ্ধ থাকবে তত বেশি পরিমাণে ভাইরাসের ঘনত্ব হতে পারে। যত বেশি উন্মুক্ত বা প্রাকৃতিকভাবে বাতাস চলাচল করা হবে তত কম ঘনত্ব হবে। 

তবে এইসব জিনিসগুলি স্পর্শ করার আগে ও পরে সাবান দিয়ে হাত ধুয়ে নিতে হবে, যেমন শ্লেষ্মা ঝিল্লী (নাকে আঙ্গুল ঢোকানো যাদের অভ্যাস, বা মুখে আঙ্গুল ঢুকিয়ে খৈনী বের করা) , খাবার, সুইচ, নক, রিমোট কন্ট্রোল, তালা, ফোন, ঘড়ি, কম্পিউটার, ডেস্ক, টিভি ইত্যাদি।

হ্যান্ডস ড্রাই ভালো করে ধুতে হবে, কারণ ভাইরাস অণুগুলি মাইক্রো ফাটলগুলিতে লুকিয়ে থাকতে পারে।  ময়শ্চারাইজার একটু বেশী করে লাগালে ভাল। আপনার নখগুলি ছোট রাখুন যাতে ভাইরাসটি সেখানে না লুকিয়ে থাকে।

# how to remain safe from covid-19 # bacteria vs virus

Courtesy: Johns Hopkins University

Facebook Comments
error: Content is protected !!
%d bloggers like this: