কবিতার নাম “অবুঝ” – কবি ক্ষিতীশ বর্মন


অবুঝ

📝ক্ষিতীশ বর্মন
 
পাছিলা পাখে বাবুর ঘর 
তোর সব মারি দ্যায়, 
তুই কইস..
“বা,বাবু ভালো লাগিতেছে আমাকে।” 
 
আর ঝেলা তোর আগ পাসে
 তোর বন্ধু বান্ধব,ভাই,
ভাতিজা দাদা বৌদি,বাপ, মাও,
 তোর ভালবাসা চায়, 
একমুটি হাসি চায়, 
একটা সলই কাঠি চায়, 
আগুন জ্বলে বার বাদে 
শিক্ষার ওগুন,চেতনার অঘুন। 
তুই হার কিপটা সাজিয়া ডিককিরি উঠিস… 
 
বাবুর পাছিলাত দৌড়ি যাইস, 
“বাবু উমুরা অঘুণ জলের চানদায়! 
পেপুড়া টা মরিবার চায় পাখনা গজাইছে.. 
হামরা বুঝিরে না পাই, 
সোগায় নেটু তুলি মারি দৌড় বাবুর পাচিলা পাকে.. 
 
বাবু কয়.. 
ঝাঁপ দ্যাও এটে, 
ন্যাম্পো থুসুং জ্বালে। 
হামা কই ভালে পুনর্জন্ম হবে তালে। 
 
মূর্খের স্বর্গ গন্ডারের খড়গ একে কি হয়? 



 

উদুঙ্কার ঘটনা, শিলিগুড়ি শহরের বুকত স্কুলের জন্যে বিঘা দুই (আনুমানিক মূল্য ৬ কোটি টাকা) জমিদাতা শ্রী কবিলাল বর্মন মহাশয়ের বিষয় টাও একবার স্মরণ করি দিল্।

Facebook Comments

Leave a Reply / Comment / Feedback