কবিতার নাম “নেতা কাহিনী” – কবি ক্ষিতীশ বর্মন


নেতা কাহিনী

📝ক্ষিতীশ বর্মন

ছোটবেলাত নেতাক ভাবছিলু্ঙ
বাড়ির ঘর মোছার নেতা।
জেলা হুশ হৈল
দেখোং পাড়াত জোচ্চোর মস্তান গুন্ডা গিলা নাকি নেতা
হিত্তি হুত্তি মানসি গিলাক দল বাঁধিয়া নিগায়..
কি বা খায়া উমা
ভুরি নামাইল-মানসী গিলা ঘাড় ধাক্কে নামে দিল..নেতা ছাড়িয়া হইছে এলা উমা জনদরদী সমাজসেবী কাহ  ব্যবসায়ী।

আর ও বড়ো হয়া দেখঙ্
হুল্লা নেতা না হয়!আরও আছে  নেতা
উমা গাড়িত চড়ি বেড়ায়
জনসভাত বুক উচা করি ভাষণ দেয়
আর অন্ধকরৎ জাদু দেখায়
কি যে জাদু দেখায়..!
উমার দালান বাড়িত বান্দি থুইল জোড় করি সুখের পায়রা।
পায়রা গিলাক মানসি উড়ি দিল একদিন
খালি ঢোলত ঢুকিয়া উমা এলা
বক বকম বকবকম করে..

জেলা মুই ভোট দিম
সেলা দ‍্যখং আরও আছে বড় সব নেতা
ঝায় এই দ্যাশটা চালায়
উমা হইলেক রাজ নেতা!করে রাজনীতি
কি যে রাজনীতি…!
গণতন্ত্রের উপর রোলার ড্রাইভার হয়া
চ‍্যপটা করে হামাক বারবার।

তাও মুই এলাও বুঝঙ্  না নেতা কায়?
কিসত নাগে?
খালি বসি বসি ভাবং
ঘরমোচার নেতা হইলেই ভাল হৈলেক হয়
নোংরা খোলান খান মুছিয়া ঝকঝকা করিয়া
নেতার ফটকত মালা পেন্দে
গোবর জলের শান্তি ছিটা দিলুং হয়।
মন্ত্র কলুং হয় ও্ম শান্তি।ও্ম শান্তি।(সব নেতা য় এই রকম না হয়)



 

Facebook Comments

Leave a Reply / Comment / Feedback