কবিতার নাম “কালি মাখা জলোলোই মুখ” – কবি ক্ষিতীশ   বর্মন

হামার ইতিহাস বিকৃত করির বাদে হামার বিভিন্ন মানসি সোশ্যাল গ্রুপ ওত যেভাবে গত কয়েক দিন ধরি প্রতিবাদ আর আলোচনাত মুখর হইসে তার বাদে এখান কবিতা। তবে ইতিহাস চাপা থাকে না, যদি কোনো জাতি চিরদিন ঘুমি না থাকে। সৈত্য সূর্যের আলোর মতন।


 কালি মাখা জলোলোই মুখ

  📝লেখকঃ ক্ষিতীশ বর্মন
 
 
আজি কলঙ্কিত কেনে হামার ইতিহাস?
কন না সব ভাইগ্যের পরিহাস।
সব জল বাঁধন ছাড়া হইলেক হয় যদি,
কলকলেয়া গেইলেক হয় ভাষার নদী।
ঘুমি থাকা জাতি-সব তোর ভুল,
ভাঙ্গি গেইলেক আজি ধৈর্যের কুল।
আইসছে আজি ঘোর আন্ধার আতি,
ঘুমাও আরো নাক ডাকি ক্ষত্রিয় জাতি।
মাটি থাকি ঠ্যাং কি সরিছে?
তোর যে দেখোং ঘুম ভাঙির ধরিসে!
 
মানসি জাতি টা না হয় কাপুরুষ,
যুগে যুগে আইসে মহাপুরুষ।
ইতিহাসের পাতাত উঠে নয়া জাগরণ,
ঝেলা কাজ করে ঈশ্বরচন্দ্র, রামমোহন।
খালি চির বঞ্চিত থাকে হাজার পঞ্চানন।
 
যতই চাপে রাখো সইত্য অবদান,
আলো দেখিবেই হামার ঠাকুর পঞ্চানন।
জয়! জয়!ঠাকুর পঞ্চানন বর্মা,
ইতিহাস সাক্ষী তোমায় আসল কর্মা।

 


Facebook Comments

Leave a Reply / Comment / Feedback