কুচবিহার পুরসভা ঐতিহ্যবাহী মদনমোহন মন্দিরের দেওয়াল ভেঙে নতুন পাম্প বসাচ্ছে যা বেআইনি বলে কুচবিহারের বিভিন্ন নাগরিক মন্চ তথা দেবোত্তর ট্রাস্টের সদস্য মাননীয় প্রসেনজিত বর্মন মন্তব্য করেছেন।

কুচবিহারের আপামর জনসাধারনের আবেগে আঘাত করা হচ্ছে যা প্রশাসন বার বার করে আসছে। এর আগে মহারাজা জিতেন্দ্রনারায়ন হাসপাতালের নাম পরিবর্তন করে কুচবিহার মেডিকেল কলেজ রাখা হয়েছিল। রাজবাড়ির জমির উপরে ফ্ল্যাট নির্মানের পরিকল্পনা নিয়ে সোসাল মিডিয়ায় হৈচৈ পড়ে যায়।

কুচবিহারের মানুষের আবেগে আঘাত করা হচ্ছে ঠিকই কিন্তু সংঘটিত কোনো আন্দোলনের বহিঃপ্রকাশ এখোনো হয়নি যার ফলে কুচবিহারের হেরিটেজ এর উপর বার বার আঘাত হানা হচ্ছে প্রশাসনিক অপশক্তির দ্বারা। সরকার অবশ্য সব জেনে শুনেও ঠুটো জগন্নাথ হয়ে থেকেছে অতীতে! সাধারন মানুষের মোহভঙ্গ যার অন্যতম কারন।

আশা করা যায় কুচবিহারের বিভিন্ন কোচ রাজবংশী কামতাপুরী সংগঠন এর তীব্র প্রতিবাদ করবে আর অবিলম্বে প্রশাসন যাতে হস্তক্ষেপ করে বেআইনি ভাবে হেরিটেজ সম্পত্তির উপরে পাম্প বসানোর কাজ বন্ধ করার নির্দেশ দেয়।


error: Content is protected !!